বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পাইকগাছায় বাল্য বিবাহ বন্ধ সহ অর্থ দন্ড প্রদান করেন-ইউএনও মাহেরা নাজনীন খুলনার গাইকুরে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় যুবকের মরদেহ উদ্ধার রামপালে উপজেলা নির্বাচনে ৩ পদে ১২ জনের মনোনয়নপত্র জমা পূত্র পাচারের অভিযেগে এক নারীর বিরুদ্ধে আড়ংঘাটা থানায় অভিযোগ দিঘলিয়া উপজেলা প্রশাসনের বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপিত মোংলা-ঘোষিয়াখালী চ্যানেলের তীরভূমি দখলের মহোৎসব; নাব্যতা সঙ্কটের শংকা পাইকগাছায় ১ম ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ একাডেমির উদ্বোধন খুলনায় পহেলা বৈশাখ উদযাপন বাঙালি জাতির শাশ্বত ঐতিহ্যের প্রধান অঙ্গ পহেলা বৈশাখ : রাষ্ট্রপতি মুক্তিপণ পেয়ে জাহাজ ছাড়ে জলদস্যুরা, নাবিকরা সুস্থ : মালিক পক্ষ

পাইকগাছায় সকাল থেকে অপেক্ষা; টিসিবির পণ্য না পেয়ে শূন্য হাতে ফিরলেন ৩শ কার্ডধারী

খুলনার কাগজ
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২

 

পাইকগাছা প্রতিনিধি।।চাল, তেল, ডাল, চিনির মতো নিত্যপণ্যের আকাশ ছোঁয়া দামের কারণে নিম্ন আয়ের মানুষের টিসিবির পণ্যই যেন শেষ ভরসা। লাইনে সংখ্যা বাড়ছে মধ্যবিত্তেরও। খুলনার পাইকগাছায় পৌরসভায় টিসিবির পণ্য বিক্রয়ে অনিয়ম, দুর্নীতি ,স্বেচ্ছাচারিতা ও ক্ষমতার অপব্যবহারের কারনে পৌরসভার নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য ফ্যামিলি কার্ডের ভর্তুকি মূল্যের বরাদ্দ টিসিবির পণ্য না পেয়ে শূন্য হাতে ফিরে গেলেন প্রায় ৩ শতাধিক কার্ডধারী। তবে এ বিষয়টি ডিলার অস্বীকার করেছে। ভোক্তারা প্রসাশনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। অভিযোগে জানা যায়, পাইকগাছা পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে টিসিবির কার্ডধারী ১৬৪১ জন।এসব কার্ডধারীদের মধ্যে গত ২২ ও ২৩ নভেম্বর উপজেলা পরিষদ মাঠ প্রাঙ্গনে ৪০৫ টাকা দরে টিসিবির পণ্য তেল, চিনি,ডাল বিক্রি করার কথা থাকলেও নির্ধারিত দিনে নির্ধারিত স্হানে পন্য বিক্রি না করে পরবরর্তীতে সুবিধাজনক সময়ে পৌরসভার টাউন স্কুলে গত ২৬ নভেম্বর শনিবার সকাল ১১ থেকে ৩ টা পর্যন্ত পন্য বিক্রি করা হয়। নির্ধারিত কার্ডধারীদের মধ্যে টিসিবির পন্য ২ দিন বিক্রি করার কথা থাকলেও ট্যাগ অফিসার ইমান উদ্দিন ও ডিলার মেসার্স কপিলমুনি ট্রেডার্স এর মালিক মোনোওয়ার হুসাইন যোগসাজশে অর্ধেকের বেশি কার্ডধারীদের কাছে এ পন্য বিক্রি করে।এতে বাকী প্রায় ৩ শতাধিক কার্ডধারীদের মাঝে পন্য বিক্রয় না করে ট্যাগ অফিসার ইমান উদ্দিন ও ডিলার মোনোওয়ার হুসাইন সুকৌশলে বেশি দামে অন্যত্র বিক্রি করেছে বলে তারা অভিযোগ তুলেছেন।ফলে নিম্ন আয়ের মানুষের ফ্যামিলি কার্ড থাকলেও সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত পণ্যের আশায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে পাননি টিসিবির কাঙ্খিত পণ্য। আর এ কারনেই অপেক্ষার পর শূন্য হাতেই বাড়ি ফিরতে হয়েছে তাদের।পণ্য না পেয়ে কার্ড হাতে গালমন্দ করে পণ্য বঞ্চিত কার্ডধারীরা। পণ্য নিতে আসা কার্ডধারী আবু সাত্তার, সেলিম,লিজা, মনিরুজ্জামান সহ একাধিক পণ্য বঞ্চিত কার্ডধারীরা জানান, বিকাল ৩ টার দিকে পন্য কিনতে গেলে মাল নাই বলে আমাদের সাফ জানিয়ে দেয়। তখন আমরা বলি ২ দিন বিক্রি করার কথা এক দিনে কিভাবে সব মাল বিক্রি হলো,আর আমাদের কার্ডের মাল কে নিল,এমন কথা বলা মাত্রই ট্যাগ অফিসার বলেন কাউকে কৈফিয়াত দিতে এখানে আসেনি।

এব্যাপারে পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলাউদ্দীন গাজী অভিযোগ করে বলেন, ট্যাগ অফিসার ইমান উদ্দিন ও ডিলার ঐ দিন দরজা লাগিয়ে পন্য বিক্রি করেছে। আমার ওয়ার্ডে ২৫ জন কার্ডধারী সহ পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রায় ৩শতাধীক কার্ডধারী পন্য ক্রয় করতে পারেনি। ট্যাগ অফিসার ইমান উদ্দিন ও ডিলার ব্যাপক অনিয়ম করেছে। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি। ডিলার মোনোওয়ার হুসাইন বলেন, ২ দিন দেয়ার কথা ছিল ঠিক, কিন্তু ম্যাম যে ভাবে বলেছে সেইভাবে বিক্রি করা হয়েছে।ট্যাগ অফিসার ইমান উদ্দিন জানান,২ দিন পন্য বিক্রি করার কথা আমি জানতাম না,ডিলার যে ভাবে বলেছে সেই ভাবে বিক্রি করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম জানান, ভুয়া কার্ডধারীরা পন্য নিয়ে চলে যাওয়ার কারণে প্রকৃত কার্ডধারীরা পন্য পাইনি।তবে আগামী মাসে প্রকৃত কার্ডধারীরা যাতে পন্য পায় সে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Khulnar Kagoj
ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট Shakil IT Park