সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বটিয়াঘাটায় কৃষি ব্যাংক কর্তৃক গ্রাহক সেবা উন্নয়ন বিষয় মতবিনিময় সভা ইবাদত বন্দেগী আর ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র শবে বরাত পালিত বাংলাদেশের বিচারকাজ পর্যবেক্ষণ করলেন ভারতের প্রধান বিচারপতি গর্ভের সন্তানের লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ করা যাবে না: হাইকোর্ট বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৫০ নারী, গেজেট মঙ্গলবার পাইকগাছায় ৫০০’গ্রাম গাঁজা সহ আটক-২ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ফরহাদ সরদার রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) প্রাপ্তির জন্য নির্বাচিত খুলনায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে চারটি দোকান ভস্মীভূত কুরআন ও দ্বীনি শিক্ষা শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় মূল্যবোধের আদর্শ নাগরিক গড়ে তুলবে ; শেখ জুয়েল এমপি নগরীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় যুবক নিহত

দাকোপ থানার লাউডোব ইউনিয়নের ১ তক্ষক ব্যবসায়ী আটক

খুলনার কাগজ
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৯ জুলাই, ২০২৩

 

আমিনুল হোসেন রনি বাজুয়া প্রতিনিধি।।খুলনার দাকোপ উপজেলায় লাউডোব পশ্চিম পাড়া গ্রাম থেকে থানা পুলিশের অভিযানে নিষিদ্ধ বন্যপ্রাণী তক্ষকসাপ বিক্রির সময় হাতে নাতে ১ জনকে আটক করা হয়েছে।অতপর সংঘবদ্ধ চক্রের ৩ জন সদস্য পালাতক রয়েছে।দাকোপ থানা পুলিশ সুত্রে জানাযায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৮জুলাই দিবাগত রাতে ৩ নং লাউডোব ইউনিয়নের লাউডোব পশ্চিম পাড়া গ্রামের প্রফুল্ল কয়াল এর পুত্র মহিম কয়াল (৫০), জিনাদ আলী শেখ এর পুত্র আকরাম শেখ (৪৮), নুরআলী শেখ এর পুত্র মাসুদ শেখ (২৮) ও মাসুদ শেখ এর স্ত্রী নাসমিন শেখ(২২) নামের একটি সংঘবদ্ধ চক্র লাউডোব পশ্চিম পাডা গ্রামের বাড়ীর পাশে ফাঁকা জায়গায় অবৈধভাবে নিষিদ্ধ বন্যপ্রাণী তক্ষক বিক্রির আলাপ করছিল। এমন সময় ঐ স্হানে হঠাৎ উপস্থিত হয় দাকোপ থানা পুলিশের এস আই বিজয় কৃষ্ণ কর্মকার, আজমীর হোসেন, সহ কনস্টেবল হেলালুর রহমান, মোল্লা নাইমুর,ও বিশ্বজিৎ। ঘটনা স্হলে থেকে একটি জীবিত ১৪. ৫ ইঞ্জি লম্বা তক্ষক সাপ সহ হাতেনাতে মহিম কয়ালকে আটক করে। পরে আকরাম, মাসুম, ও নাসমিন এ ৩ জন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালাতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে থানায় এসে ধৃত মহিম কয়ালকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে পলাতক ঐ তিন জন আসামির নামে বলে তারা এ তক্ষক সাপ পাচার চক্রের সক্রিয় সদস্য ছিল।থানায় একটি নিষিদ্ধ বন্যপ্রানী সংরক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে ৪ জনকে আসামী করে ধৃত মহিম কয়ালকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।এব্যাপারে দাকোপ থানা পুলিশ ইনচার্জ উজ্জ্বল কুমার দত্ত বলেন আসামীদের বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।এধরণের অবৈধ পাচারকারী চক্রের বিরুদ্ধে এমন অভিযান অব্যহত থাকবে ও সুষ্ঠু সমাজ বিনির্মানে দাকোপ থানা প্রশাসন তৎপর।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Khulnar Kagoj
ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট Shakil IT Park