মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পুলিশ ও র‍্যাব এর যৌথ অভিযানে উদ্ধার হলো মহাসিন স্কুলের প্রধান শিক্ষকের পূত্র শাফিন বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি যুবক নিহত দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ উৎপাদনের রেকর্ড আজ কেসিসির সাবেক কাউন্সিলর পিন্টুর বাসভবনে হামলার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন পাইকগাছায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে পানি সংরক্ষণের জলাধার বিতরণ খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা ছোট পর্দার অভিনেতা রুমির ইন্তেকাল প্রচণ্ড দাবদাহে খুলনায় কেএমপি কমিশনারের উদ্যোগে বিশুদ্ধ খাবার পানি, জুস ও স্যালাইন বিতরণ খুলনা আড়ংঘাটা বাইপাস আকমলের মোড়ে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার আইজিপি কাপ ক্রিকেটে পুলিশ স্টাফ কলেজ তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন এবং খুলনা রেঞ্জ রানার আপ

চরমোনাই ঐতিহাসিক বার্ষিক মাহফিল আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হল

খুলনার কাগজ
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

ইমরান মোল্লা স্টাফ রিপোর্টা।।বরিশালের কীর্তনখোলা নদীর তীরে অবস্থিত চরমোনাইর ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি প্রতিষ্ঠান জামেয়া রশিদিয়া আহসানাবাদ মাদরাসার (ফাল্গুনের) বার্ষিক মাহফিল আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হল। লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির উপস্থিতিতে মাহফিলের আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ইসলামী আন্দোলনের আমীর চরমোনাইর পীর সাহেব মাওলানা সৈয়দ মোঃ রেজাউল করিম। কীর্তনখোলা নদীর তীরে লাখো ভক্ত-মুরিদ মোনাজাতে অংশগ্রহণ করেন।এর আগে ফজরের নামাজের পর পীর চরমোনাই মাহফিলে অংশগ্রহণকারী মুসল্লিদের উদ্দেশে হেদায়েতি বয়ান পেশ করেন। বয়ানে পরকালের চিরস্থায়ী জীবনের প্রস্তুতির নসিহত করে বলেন, এ দুনিয়া থাকার জায়গা না। তাই কোনো বুদ্ধিমান ব্যক্তি দুনিয়ার মোহে পড়তে পারে না। আখেরি মোনাজাত পূর্বক ফজর বাদ শেষ বয়ানে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, হেদায়েত হলো মানুষের জন্য সর্বোত্তম নেয়ামত।এ জন্যই হেদায়েত নামক অমূল্য সম্পদটি আল্লাহপাক তার নিজের হাতে রেখেছেন।এ সম্পদটি তিনি বান্দাকে নিজ হাতে দিতে চান। তবে এ জন্য আমাদের শুধু মাওলার কাছে চাইতে হবে। মন থেকে কেউ হেদায়েত চাইলে আল্লাহপাক অবশ্যই তাকে হেদায়েত দিয়েই দেবেন। এ জন্য বেশি বেশি হেদায়েত চাইতে হবে। তিনি আরো বলেন, দুনিয়া হলো আখেরাতের কামাইয়ের জায়গা।

উল্লেখ্য, বরিশালে চরমোনাইর ৩ দিনব্যাপী বার্ষিক মাহফিল গত বুধবার বাদ জোহর উদ্বোধনী বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় শনিবার শেষ হয়। বছরে দুটি মাহফিলের মধ্যে ফাল্গুন মাসের মাহফিলটি বেশি গুরত্বপূর্ণ হিসাবে গণ্য করেন চরমোনাই পীর অনুসারীরা। প্রতিবার মাহফিলে ৫টি মাঠ থাকলেও মুসল্লি বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার আরও একটি নতুন মাঠ করা হয়েছে।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Khulnar Kagoj
ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট Shakil IT Park