সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বটিয়াঘাটায় কৃষি ব্যাংক কর্তৃক গ্রাহক সেবা উন্নয়ন বিষয় মতবিনিময় সভা ইবাদত বন্দেগী আর ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পবিত্র শবে বরাত পালিত বাংলাদেশের বিচারকাজ পর্যবেক্ষণ করলেন ভারতের প্রধান বিচারপতি গর্ভের সন্তানের লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ করা যাবে না: হাইকোর্ট বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হলেন ৫০ নারী, গেজেট মঙ্গলবার পাইকগাছায় ৫০০’গ্রাম গাঁজা সহ আটক-২ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ফরহাদ সরদার রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) প্রাপ্তির জন্য নির্বাচিত খুলনায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে চারটি দোকান ভস্মীভূত কুরআন ও দ্বীনি শিক্ষা শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় মূল্যবোধের আদর্শ নাগরিক গড়ে তুলবে ; শেখ জুয়েল এমপি নগরীতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় যুবক নিহত

খুলনায় প্রতিদ্বন্দ্বীহীন এ নির্বাচন সুষ্ঠু হলেও গ্রহণ যোগ্যতার সংকটে পড়বে

খুলনার কাগজ
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ৯ জুন, ২০২৩

 

স্টাফ রিপোর্টার।।খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে না। ভোটাররা বুঝতে পারছেন কে নির্বাচিত হবেন। এ অবস্থায় নির্বাচনে উৎসব নেই, আছে উৎকণ্ঠা। প্রতিদ্বন্দ্বীহীন এ নির্বাচন সুষ্ঠু হলেও গ্রহণযোগ্যতার সংকটে পড়বে বলে জানিয়েছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)।

বৃহস্পতিবার (০৮ জুন) খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে কেসিসি নির্বাচন নিয়ে এমন পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেন সুজন নেতারা। প্রার্থীদের তথ্য উপস্থাপন এবং অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের আহ্বান জানিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সুজন বলেছে, খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) প্রার্থীদের স¤পদের হিসাবের যে চিত্র উঠে এসেছে, তাকে কোনোভাবেই স¤পদের প্রকৃত চিত্র বলা যায় না। কেননা, প্রার্থীদের মধ্যে অধিকাংশই প্রতিটি স¤পদের মূল্য উল্লেখ করেন না, বিশেষ করে স্থাবর সম্পদ। আবার উল্লেখিত মূল্য বর্তমান বাজার মূল্য না; এটা অর্জনকালীন মূল্য। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সুজন কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলিপ কুমার সরকার। সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থীদের হলফনামায় দেওয়া তথ্য ও বিশ্লেষণ তুলে ধরা হয়। একই সাথে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সকলের প্রতি দাবি জানানো হয়।

 

সুজন জানিয়েছে, খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মোট ১৮০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও ১৯ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী শেখ মোঃ আরিফুজ্জামানের তথ্য কমিশনের ওয়েবসাইটে পাওয়া না যাওয়ায় ১৭৯ জন প্রার্থীর বিশ্লেষণ তুলে ধরা হলো। কেসিসির ৫ জন মেয়র প্রার্থীর মধ্যে একজনের (২০%) শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতকোত্তর, ২ জনের (৪০%) ¯œাতক এবং ২ জনের (৪০%) শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসির নিচে। ¯œাতকোত্তর স¤পন্ন করা মেয়র প্রার্থী হলেন: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মোঃ আঃ আউয়াল; ¯œাতক স¤পন্ন করা দুইজন মেয়র প্রার্থী হলেন: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক ও জাকের পার্টির প্রার্থী এস এম সাব্বির হোসেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোঃ শফিকুল ইসলাম মধু ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম শফিকুর রহমান শিক্ষাগত যোগ্যতার ঘরে উল্লেখ করেছেন স্ব-শিক্ষিত।

মোট ৩১ টি সাধারণ ওয়ার্ডের তথ্য পাওয়া ১৩৫ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ৩৬ জনের (২৬.৬৭%) শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি’র নিচে, ২২ জনের (১৬.৩০%) এসএসসি, ৩২ জনের (২৩.৭০%) এইচএসসি, ৩২ জনের (২৩.৭০%) স্নাতক এবং ১১ জনের (৮.১৫%) স্নাতকোত্তর। মোট ১০টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের ৩৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ১২ জনের (৩০.৭৭%) শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি’র নিচে, ৬ জনের (১৫.৩৮%) এসএসসি, ৮ জনের (২০.৫১%) এইচএসসি, ১০ জনের (২৫.৬৪%) স্নাতক এবং ২ জনের (৫.১৩%) স্নাতকোত্তর। স্নাতকোত্তর স¤পন্ন করা ২ জন হলেন সংরক্ষিত ৭ নং ওয়ার্ডের খাদিজা আক্তার এবং সংরক্ষিত ৯ নং ওয়ার্ডের মাজেদা খাতুন। সর্বমোট ১৭৯ জন প্রার্থীর মধ্যে ৭৮ জনের শিক্ষাগত যোগ্যতা (৪৩.৫৭%) এসএসসি ও এর নিচে। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গন্ডি অতিক্রম করেননি এমন প্রার্থী আছেন ৫০ জন (২৭.৯৩%)। শিক্ষাগত যোগ্যতার ঘর পূরণ না করা ৩ জন প্রার্থীকে যোগ করলে এই সংখ্যা দাড়ায় ৫৩ জন (২৯.৬১%)। অপরদিকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী প্রার্থীর সংখ্যা মাত্র ৫৮ জন (৩২.৪০%)।

Facebook Comments Box
এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Khulnar Kagoj
ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট Shakil IT Park